শীর্ষ সংবাদ

মানহীন ক্লিনিক বন্ধ হচ্ছে,ও বেসরকারি হাসপাতালের ফি নির্ধারণ- স্বাস্থ্যমন্ত্রী

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে চিকিৎসা সেবায় দেশের প্রাইভেট খাতের সংযুক্তি শীর্ষক বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি। জানান খুব দ্রুতই বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকে সেবার নির্দিষ্ট মানদণ্ড নির্ধারণের পর মানহীন ক্লিনিক বন্ধ করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। একইসঙ্গে সব বেসরকারি হাসপাতালে নির্দিষ্ট হারে ফি নির্ধারণে সরকার চেষ্টা করছে বলেও জানান তিনি। চিকিৎসাসেবা নিতে মানুষের খরচ বেশি হচ্ছে- এমনটা স্বীকার করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী বলেন, ‘চিকিৎসাসেবা নিতে দেশের মানুষের আউট অব পকেট এক্সপেনডিচার (নিজের পকেট থেকে খরচ) বেশি হচ্ছে। অথচ দেশের সরকারি স্বাস্থ্যসেবা বিনামূল্যেই দেয়া হয়। চিকিৎসাসেবা নিতে মানুষের এত বেশি টাকা ব্যয়ের মূল কারণগুলোর মধ্যে বিদেশে চিকিৎসা নেয়া, দেশের প্রাইভেট মেডিকেল থেকে সেবা নেয়া বা ওষুধ কেনা অন্যতম।’ তিনি বলেন, ‘দেশের প্রাইভেট মেডিকেল সার্ভিস চিকিৎসা ক্ষেত্রে সরকারের পাশাপাশি উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে চলেছে। তবে একেক হাসপাতালের একেক রকম চার্জ সাধারণ মানুষের ভোগান্তির আরেকটি কারণ হয়েছে। এ কারণে সরকার দেশের প্রাইভেট মেডিকেল সেবার ক্ষেত্রে হাসপাতালের মানগত দিক বিবেচনা করে সরকার একটি নির্দিষ্ট হারে ফি নির্ধারণ করে দেয়ার উদ্যোগ নেয়ার ব্যাপারে উদ্যোগী হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যেই দেশের প্রাইভেট মেডিকেল প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করে এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’ দেশের আনাচে-কানাচে প্রাইভেট ক্লিনিক স্থাপিত হচ্ছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘সারাদেশে প্রাইভেট ক্লিনিকে ছেয়ে গেছে। এই ক্লিনিকগুলোর কিছু মানসম্পন্ন সেবা দিলেও বহুসংখ্যক ক্লিনিকে মানসম্পন্ন চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে না। এসব ক্লিনিকে ভালো মানের চিকিৎসা সরঞ্জামাদি নেই।’ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. আবদুল মান্নান, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশীদ আলম, বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মুবিন খানসহ দেশের বিভিন্ন প্রাইভেট মেডিকেল হাসপাতালের প্রতিনিধিরা।

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আর অংশ নেবে না বিএনপি-ফখরুল

আগামী স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে না জানিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আগামী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে দলগতভাবে বিএনপি অংশ নেবে না। বলেন আলমগীর বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের কার্যালয়ে রবিবার বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল একথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদসহ আর কোনো স্থানীয় নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি। আগামীতে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আমরা কাউকে মনোনয়ন দেবো না। সাম্প্রতিক সময়ে অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন উপজেলা পরিষদে উপ-নির্বাচনে ও সব পৌরসভা নির্বাচনে সরকারের নগ্ন হস্তক্ষেপ এবং নির্বাচন কমিশনের সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে চরম ব্যর্থতা নিয়ে গতকাল শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে নিন্দা ও ধিক্কার জানানো হয়েছে।’ বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বিএনপি গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে বলেই চরম প্রতিকূল অবস্থায় স্থানীয় নির্বাচনে অংশ নিয়েছিল। কিন্তু এটা প্রমাণিত যে, বর্তমান নির্বাচন কমিশনের কোনো নির্বাচনই নিরপেক্ষ, অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নয়। অনির্বাচিত সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়নই তাদের প্রধান কাজ।’ স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের বিরোধিতা বিএনপি সবসময় করেছে বলে উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভয়াবহ এ পরিস্থিতিতে আগামীতে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেএ প্রসঙ্গ তুলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, জাতীয় প্রেস ক্লাবে আজকে ছাত্রদলের সমাবেশে পুলিশ ইচ্ছাকৃতভাবে হামলা চালিয়েছে। ডিজিটাল আইনের মাধ্যমে সরকার মত-প্রকাশের স্বাধীনতা ক্ষুণ্ন করেছে। অবিলম্বে এ আইন বাতিল করার দাবি জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব। একইসঙ্গে কারাবন্দি অবস্থায় লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনা বিচার বিভাগীয় তদন্তেরও দাবি জানান মির্জা ফখরুল।

রাজধানীতে প্রেসক্লাবের সামনে ছাত্রদলের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ছাত্রদলের বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘিরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ-সাংবাদিকসহ আহত হয়েছেন অন্তত ৩৫ জন। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, অনুমতি ছাড়াই প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ শুরু করে ছাত্রদল। সকাল ১০টার দিক থেকে ছাত্রদল ও বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাব এলাকায় জড়ো হতে থাকেন। বেলা সোয়া ১১টার দিকে তারা রাস্তায় নামলে বাধা দেয় পুলিশ।একপর্যায়ে পুলিশ লাঠিপেটা শুরু করে। এতে নেতাকর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যান। তারা পুলিশকে লক্ষ করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকেন। ভাঙচুর করেন গাড়ি ও আশপাশের ভবন। পুলিশ ফাঁকা গুলি ও কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। চলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। বিএনপি নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবে ঢুকে পড়লে প্রেসক্লাবের গেট বন্ধ করে দেয়া হয়। এরপর পুলিশ প্রেসক্লাব চত্বরে ঢুকে পড়লেও সেখানে বিএনপির নেতাকর্মীদের পাওয়া যায়নি। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পুলিশ পুরো এলাকা নিয়ন্ত্রণে আনে।এই সমাবেশে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের অংশ নেয়ার কথা থাকলেও তিনি আসার আগেই সেখানে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এদিকে প্রেসক্লাবের সামনে পূর্বপরিকল্পিতভাবে পুলিশের ওপর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন রমনা জোনের ডেপুটি কমিশনার সাজ্জাদুর রহমান। এ ঘটনায় কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

চট্টগ্রামের তিন পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে,টহল জোরদার

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া, মিরসরাই ও বারইয়াহাট পৌরসভা রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি)পঞ্চম ধাপে ভোট শুরু হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে ভোট শুরু হয়েছে। চলবে একটানা বিকেল ৪টা পর্যন্ত। তিন পৌরসভাতেই প্রথমবারের মত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ হচ্ছে। এ নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে আগ্রহের পাশাপাশি আশঙ্কাও রয়েছে। ইতোমধ্যে নির্বাচনী এলাকাগুলোয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ, র্যাব ও বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার মেয়র পদে প্রার্থী দুইজন। আওয়ামী লীগ মনোনী প্রার্থী মো. শাহজাহান সিকদার ও বিএনপির প্রার্থী হেলাল উদ্দিন শাহ। এখানে সাধারণ ওয়ার্ডে ৩৫ জন কাউন্সিলর প্রার্থী নির্বাচন করছেন। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আটজন প্রার্থী। ১০ জন ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে আছেন। পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ২৫ হাজার ৭৯১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৩ হাজার ৫১৯ জন, নারী ভোটার ১২ হাজার ২৭২ জন। ১১টি ভোট কেন্দ্রের ৭০টি বুথে এবার ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। এদিকে মিরসরাই পৌরসভায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী নুর মোহাম্মদের প্রার্থিতা বাতিল হওয়ায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন। তবে ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ৩৭ জন প্রার্থী এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে পাঁচজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ৯টি ওয়ার্ডের মোট ভোটার ১২ হাজার ৮৫৫ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ছয় হাজার ৪৪২ জন ও মহিলা ভোটার ৬ হাজার ৪১৩ জন। প্রতিটি কেন্দ্রে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও তিনটি কেন্দ্র নিয়ে একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত আছেন। কেন্দ্রের নিরাপত্তায় দুই প্লাটুন বিজিবি, ২৫০ পুলিশ সদস্য, ৭৬ জন আনসার ও সার্বক্ষণিকভাবে র্যাবের টহল দিচ্ছে।

২০ জেলার ২৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে

পঞ্চম ধাপে দেশের ২০ জেলার ২৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়; একটানা চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এই ধাপে সব পৌরসভায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। এ নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে আগ্রহের পাশাপাশি আশঙ্কাও রয়েছে। নির্বাচন কমিশন (ইসি) জানিয়েছে, একইদিনে দেশের চারটি উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান এবং ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদে বিভিন্ন পদে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনও এদিন হচ্ছে। এছাড়া এর আগে অনুষ্ঠিত সাতটি পৌরসভায় বন্ধ ঘোষিত ভোটকেন্দ্রগুলোতে এবং মৃত্যুজনিত কারণে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ৩১ নম্বর ওয়ার্ড, ঝিনাইদহের শৈলকুপা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড, পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড, এবং সিরাজগঞ্জ পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদেও আজ ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম সিটি ও শৈলকুপায় ভোটগ্রহণ হচ্ছে ইভিএমে। একই দিন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ৩১ নম্বর ওয়ার্ড, ঝিনাইদহের শৌলকুপা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড, পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড এবং সিরাজগঞ্জ পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর পদে ভোট হচ্ছে। চতুর্থ ধাপে স্থগিত হওয়া নরসিংদীর চারটি, শরীয়তপুরের দুটি ও সোনাইমুড়ির একটি কেন্দ্রে ভোট হচ্ছে আজ। সূত্র আরও জানিয়েছে, পঞ্চম ধাপের ২৯ পৌরসভায় মেয়র পদে ১০০ জন, সাধারণ ওয়ার্ডে এক হাজার ২৭০ এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৩৪২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এসব পৌরসভায় ৬২৫টি ভোটকেন্দ্র ও চার হাজার ২২৯টি ভোটকক্ষ রয়েছে। ভোটার রয়েছেন ১৩ লাখ ৮৪ হাজার ১৬৫ জন, যাদের মধ্যে পুরুষ ৬ লাখ ৯৩ হাজার ৯০ জন এবং নারী ৭ লাখ ১১ হাজার ৮৫০ জন। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে, পঞ্চম ধাপের ১৪ পৌরসভায় ২২ স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাদের বেশিরভাগই আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী। এসব একই দলের মনোনীত ও বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সহিংসতার শঙ্কা রয়েছে বলে জানান কয়েকজন রিটার্নিং কর্মকর্তা। যেসব পৌরসভায় এক বা একাধিক স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছে, সেগুলো হচ্ছে– জয়পুরহাট, বগুড়া, নাচোল, মহেশপুর, কালীগঞ্জ, চরফ্যাশন, ইসলামপুর, ভৈরব, হবিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, শাহরাস্তি, রায়পুর, কালীগঞ্জ ও সৈয়দপুর। জানা গেছে, ১৩ পৌরসভায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বাড়তি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। রিটার্নিং কর্মকর্তা ও স্থানীয় প্রশাসনের অনুরোধে এসব সদস্য বাড়ানো হয়। পৌরসভাগুলো হচ্ছে– চারঘাট, জামালপুর, ইসলামপুর, সৈয়দপুর, কালীগঞ্জ, ভৈরব, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, বগুড়া, হবিগঞ্জ, নান্দাইল, ভোলা, কালীগঞ্জ ও শাহরাস্তি। এ ছাড়া কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদেও বাড়তি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

চসিকর প্যানেল মেয়রের জন্য দৌড় ঝাপ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরী। চসিকের নির্বাচিত ষষ্ঠতম পরিষদ। এ পরিষদে কারা আসছেন প্যানেল মেয়র হিসেবে সেই আলোচনা চলছে শপথগ্রহণের আগে থেকেই। নবনিযুক্ত চসিকর মেয়রের পর কোন কাউন্সিলর থেকে ৩জন প্যানেল মেয়র গঠন করবেন? এমন প্রশ্ন এখন সচেতন মহলে।সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে,চসিকের বিগত সময়ে প্যানেল মেয়র ভোটাভুটি বা মৌখিক সমর্থনে হলেও এবারের সমীকরণ জটিল। চসিকের প্যানেল গঠিত হলে সেখানে কে কে সদস্য হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন তা নিয়েও ঢাকায় দৌড় ঝাপের কমতি নেই। চলছে বিভিন্ন মন্ত্রী এমপির দুয়ারে জোর তদবির।চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীলদের মতামত জানতে চাইলে তাঁরা এ ব্যাপারে মন্তব্য করতে রাজি হননি। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কেউ কেউ বলেন, প্যানেলে অন্তর্ভূক্ত হওয়ার জন্য আগ্রহী অনেকে আছেন। ইতিমধ্যে তারা নানা ভাবে তদবিরও চালিয়ে যাচ্ছেন। সবকিছু নির্ভর করবে দলের উচ্ছ পর্যায়ের নির্দেশনা ও মতামতের উপর।বিজয়ী কাউন্সিলরদের মাঝে সাবেক মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীনের অনুসারীর চেয়ে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল অনুসারীদের সংখ্যাই বেশি। যার কারণে মেয়রের কথার চেয়ে প্রধান দুই নেতার কথায় হবে চূড়ান্ত। তবে একটি সূত্র জানিয়েছে, নাছির-নওফেল সমঝোতার মাধ্যমে প্যানেল মেয়র হিসেবে নিজেদের প্রতিনিধি নির্বাচিত করার জন্য নিজ নিজ অনুসারী কাউন্সিলরদের বিশেষ নির্দেশা দিয়েছেন। প্যানেল মেয়র হতে সম্ভাব্য আগ্রহী কাউন্সিলররা নির্বাচনের পর চালিয়ে যাচ্ছেন লবিং। সমঝোতার প্যানেল হতে যাওয়ায় জোর প্রতিদ্ধন্দ্বিতা হচ্ছে নিজেদের মাঝে। নবীন- প্রবীণ মিলিয়ে অনেকেই এবার প্যানেল মেয়র পদে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। কিন্তু সমঝোতার প্যানেলের বিষযটি আঁচ করতে পেরে অনেকে এখন পিছুটান দিয়েছেন।নওফেল অনুসারীদের মাঝে রয়েছেন আব্দুস সবুর লিটনজহর লাল হাজারী, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর থেকে নীলু নাগ ও জোবাইদা নার্গীস খান, নাম আলোচনায় আছে। এর মধ্যে জহর লাল হাজারী,, নীলু নাগ সবচেয়ে বেশি । আ.জ.ম নাছিরের অনুসারী ড. নিছার উদ্দিন আহমদ মন্জু, হাসান মাহমুদ চৌধুরী হাসনি, শৈবাল দাস সুমন, আলোচনায় আছেন। শেষ সমীকরণে এসে আর কোনও নাটকীয়তা না ঘটলে এদের মাঝে থেকেই হবে চসিকের প্যানেল মেয়র। সিটি করপোরেশনের প্রথম সাধারণ সভায় প্যানেল মেয়র নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। একাধিক প্রার্থী হলে গোপন ভোটাভুটির মাধ্যমে কাউন্সিলররা প্যানেল মেয়র নির্বাচিত করে থাকেন।

(চবি) বঙ্গবন্ধু চেয়ার পদে ইতিহাসবিদ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষক অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) বঙ্গবন্ধু চেয়ারের অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ গবেষক ড. মুনতাসীর মামুন। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২৯তম সিন্ডিকেট সভায় এ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক ড. কাজী এসএম খসরুল আলম কুদ্দুসী বলেন, ৫২৯তম সিন্ডিকেট (এক্সট্রা অর্ডিনারি) সভায় প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষক অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুনকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ার পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। আগামী ২ বছরের জন্য তাঁকে এই পদে মনোনীত করা হয়। আশা করি, প্রথিতযশা এ গবেষকের হাত ধরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু চর্চার দিগন্ত প্রসারিত হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনের মুক্তিযুদ্ধের ওপর অনেক গবেষণাধর্মী কাজ রয়েছে। একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবির আন্দোলনে সম্পৃক্ত এই অধ্যাপক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে সাক্ষ্যও দিয়েছেন। এছাড়া মুনতাসীর মামুন সক্রিয় রয়েছেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটিতেও। তার প্রচেষ্টায় ২০১৪ সালের ১৭ মে খুলনায় প্রতিষ্ঠা পায় গণহত্যা নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর। একাত্তরের ২৫ শে মার্চের কালোরাত্রির গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্যও লড়ছেন তিনি। স্বাধীন বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ডাকসুর প্রথম নির্বাচনে সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন মুনতাসীর মামুন। একই সময়ে তিনি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি সংসদের সভাপতি।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩০ মার্চ খুলছে

করোনার কারণে এক বছর বন্ধ থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আগামী ৩০ মার্চ খুলবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি। জানান। আগামী ৩০ মার্চ থেকে স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে সরকার। করোনাভাইরাসের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। জজ সন্ধ্যায় সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক শেষে এ তথ্য জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শিক্ষামন্ত্রীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আব্দুল মান্নান, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মো. কামাল হোসেন, পুলিশ মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। এর আগে স্কুল-কলেজ খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে ৬ মন্ত্রণালয়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় এই বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী। বিস্তারিত আসছে…

চকরিয়ায় বাস-মাইক্রোর সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১০

আজ শনিবার( ২৭ ফেব্রুয়ারি)কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়ায় মাইক্রো ও বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও ১০ জন। আজ সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার ইসলামনগর এলাকায় মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে। সূত্রে জানান,চকরিয়া হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সিরাজুল ইসলাম ঘটনার সতত্য নিশ্চিত করেছেন। নিহতরা হলেন, উপজেলার ফাসিয়াখালী ইউনিয়নের ছাইরাখালী গ্রামের মুজিবুর রহমান (৩০) ও ডুলাহাজারা ইউনিয়নের এনামুল হক (২৫)। আহত সুনিল (৫২), আবদুল হাকিম (৩২), জাফর (৮৫), তফসির (৩০), শুভ (৫০), আবদু রশিদ (২২), ওসমান (২৩)-কে চকরিয়া হাসপাতালে আনা হলেও তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে আবদু রশিদ ও ওসমান ছাড়া অপর ৮ জনকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। জানা গেছে, চট্টগ্রাম অভিমুখী একটি যাত্রীবাহী হাইয়েস মাইক্রো ও কক্সবাজার অভিমুখী এনা পরিবহনের একটি বাস ঘটনাস্থলে পৌঁছালে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাইক্রোটি দুমড়ে মুচড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই দুইজনের মৃত্যু হয়। আহত হয় আরও দশজন। কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে ৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান চিকিৎসকরা।

এলডিসি থেকে বাংলাদেশের উত্তরণ সুপারিশ করেছে ইউএনসিডিপি

আজ শনিবার(২৭ ফেব্রুয়ারি) জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভলপমেন্ট পলিসি (ইউএনসিডিপি) নেপাল এবং লাও পিডিআর এর পাশাপাশি যোগ্যতার তিনটি মানদন্ডই পূরণ করায় দ্বিতীয় বারের মতো স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) অবস্থান থেকে বাংলাদেশের উত্তরণের সুপারিশ করেছে।এলডিসি বিষয়ক সিপিডি সাব কমিটির সভাপতি তাফের তেসফাচিও ইউএনসিডিপি’র এলডিসি ক্যাটাগরি বিষয়ক দ্বিতীয় ত্রিবার্ষিক পর্যালোচনার পরে এক ব্রিফিংয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। গত ২২ থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি এ পর্যালোচনা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ দ্বিতীয়বারের মতো মাথাপিছু আয়, মানব সম্পদ এবং অর্থনৈতিক ও পরিবেশগত ঝুঁকির মতো তিনটি উত্তরণ শর্ত পূরণে পুরোপুরি সক্ষম হয়েছে।মিয়ানমারও পরপর দ্বিতীয়বার উত্তরণের মানদন্ড পূরণ করেছে। তবে ইউএনসিডিপি মিয়ানমার ও পূর্ব তিমুরের জন্য ২০২৪ সালের ত্রিবার্ষিক পর্যালোচনার জন্য সিদ্ধান্ত স্থগিত রেখেছে। মিয়ানমারে সামরিক বাহিনী জরুরি অবস্থা ঘোষণা করায় উন্নয়নের গতি এবং উত্তরণ প্রস্তুতির ওপর নেতিবাচক প্রভাবের উদ্বেগের কারণে জাতিসংঘ প্যানেল দেশটির উত্তরণের সিদ্ধান্ত স্থগিত রেখেছে। জাতিসংঘ প্যানেল টেকসই উন্নয়নের অগ্রগতির ব্যাপারে অব্যাহত উদ্বেগের কারণে পূর্ব তিমুরের উত্তরণের সিদ্ধান্ত স্থগিত রেখেছে। প্রথমবারের মতো কোন দেশই ২০২১ সালে অন্তর্ভুক্তির জন্য যোগ্য বিবেচিত হয়নি। উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জন্য জাতিসংঘ কমিটির সুপারিশের পরে প্রস্তাবটি জুনে অনুমোদনের জন্য জাতিসংঘের ইকোনমিক এন্ড স্যোসাল কাউন্সিলে (ইসিওএসওসি) পাঠানো হবে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে প্রস্তাবটি অনুমোদনের কথা রয়েছে। কোভিড-১৯ মহামারির কারণে অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাবের জন্য সিডিপি বাংলাদেশ এবং অপর দুটি দেশের জন্য ২০২৬ সাল পর্যন্ত ৫ বছর সময় দেয়ার সুপারিশ করেছে। উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে অন্তবর্তীকালীন সময় হিসেবে প্রস্তুতির জন্য ৩ বছরের পরিবর্তে এই ৫ বছর সময় দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশ মোট জাতীয় আয়ের (জিএনআই) মানদন্ডে ২০২০ সালে মাথাপিছু আয় ১,২৩০ মার্কিন ডলারের বিপরীতে দাঁড়িয়েছে প্রায় ১,৮২৭ মার্কিন ডলার। হিউম্যান এ্যাসেট ইনডেক্সে (এইচএআই) বাংলাদেশের স্কোর দাঁড়িয়েছে ৭৫.৩ পয়েন্ট, যা নির্ধারিত সীমা ৬৬ পয়েন্ট থেকে বেশী। অর্থনৈতিক ঝুঁকির সূচক (ইভিআই) ৩২ এর কম হওয়ার কথা থাকলেও সূচক দাঁড়িয়েছে ২৭.৩ পয়েন্ট।

লাইভ টিভি

ওয়ার্ড পরিক্রমা

আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিশিষ্ট বিদ্যুৎসাহী সমাজকর্মী, স্কাউট আন্দোলন এর কর্ণধার ও আলোর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা ও বসুন্ধরা শিশু কিশোর সংগঠন এর উপদেষ্টা আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা, প্রিয় স্যারের প্রতি আবু তাহের সর্দার স্মরণ সভা কমিটির উদ্যোগে এক স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কবি ও সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, বলেন আবু তাহের সর্দার সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকবেন। জন্মিলে মরিতে হবে এটি চিরন্তন সত্য। তবুও মানুষ তাঁর সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকতে পারে। সেজন্য যাঁরা কীর্তিমান তাঁরা তাঁদের সেবামুলক কাজের মাধ্যমে মানবসমাজে বেঁচে থাকেন বহু যুগ যুগ ধরে। তিনি বলেন, এ নশ্বর পৃথিবীতে সবই ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। অর্থাৎ, কোনো মানুষই পৃথিবীতে চিরকাল বেঁচে থাকতে পারে না। সেজন্য দেশ ও মানবকল্যাণে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাওয়ার মধ্য দিয়েই আবু তাহের সর্দার অমর হয়ে থাকবেন এ রাষ্ট্র সমাজে। এ জনসমাগম স্মরণ সভা থেকে তা বুঝ যায় তিনি কতবড় ত্যাগী মানুষ ছিলেন। তিনি দীর্ঘ ৬৩ বছর এ রাষ্ট্র সমাজের জন্য শ্রম দিয়েছেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনার মুক্ত মনের বিস্ময় প্রতিভা মানুষ ছিলেন আবু তাহের সর্দার। বক্তরা বলেন, মানুষের দুঃখ-দুর্দশাকে লাঘব করতে আবু তাহের সর্দারের প্রচেষ্টা অতুলনীয়; সমাজের আলোক বর্তিকা হয়ে তিনি সমুজ্জ্বল। আবু তাহের সর্দারের কর্মজীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজ বিনির্মানে তরুনদের এগিয়ে আসার শপথ নিতে হবে। অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন আবুল হাসেম, বখতিয়ার উদ্দীন সহ মরহুমের শুভানুধ্যায়ীরা।

খেলা

আজ নিউজিল্যান্ডের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়বে টাইগাররা আজ মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি)করোনার কারণে দীর্ঘদিন পর বিদেশ সফরে যাচ্ছে টাইগারবাহিনী।আজ বিকেলে সিঙ্গাপুর এয়ারওয়েজে চড়ে নিউজিল্যান্ডের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়বে জাতীয় ক্রিকেট দল। নিউজিল্যান্ড সফরে টেস্ট সিরিজ নেই। সমান তিনটি করে ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে টাইগাররা। তবে ভিনদেশি কন্ডিশনের জন্য এবার দেশ থেকে নিজেদের সেভাবে প্রস্তুত করে যেতে পারেনি বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে লড়ার আগে তাদের মাঠেই প্রস্তুতি নিতে হবে টাইগারদের। সিরিজ আগামী মাসে শুরু হলেও, কোয়ারেন্টিন জটিলতা ও কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে বেশ আগেই নিউজিল্যান্ড যাচ্ছে টাইগাররা। সেখানে দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে অনুশীলন করবে বাংলাদেশ দল। এরপর ২০ মার্চ থেকে শুরু হবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। প্রথম ওয়ানডে হবে ডানেডিনে। এরপর ২৩ মার্চ ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ওয়ানডে। শেষ ওয়ানডেটি ২৬ মার্চ ওয়েলিংটনে। ওয়ানডে সিরিজ শেষে ২৮ মার্চ হ্যামিল্টনে শুরু হবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি হবে নেপিয়ারে ৩০ মার্চ। অকল্যান্ডে ১ এপ্রিল সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি। সিরিজের জন্য এরই মধ্যে ২০ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বিসিবি। পারিবারিক কারণে নিউজিল্যান্ডে যাচ্ছেন না সাকিব আল হাসান। তার পরিবর্তে সুযোগ পেয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। বাংলাদেশ স্কোয়াড : তামিম ইকবাল, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহীম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন ধ্রুব, সৌম্য সরকার, নাঈম শেখ, তাসকিন আহমেদ, আল আমিন হোসেন, শরিফুল ইসলাম, হাসান মাহমুদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, শেখ মেহেদি হাসান, রুবেল হোসেন, নাসুম আহমেদ।

সর্বশেষ সংবাদ