শীর্ষ সংবাদ

এপ্রিল মাস নিয়ে চিন্তায় আছি: প্রধানমন্ত্রী

এপ্রিল মাসে করোনার প্রকোপ আরও বাড়বে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করে মাসটি নিয়ে চিন্তায় আছেন বলে জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এপ্রিল মাসটা আমাদের জন্য দুঃসময়ের মাস হিসাবে আসছে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এপ্রিল মাসটা আমাদের জন্য খুবই দুঃসময়ের মাস হিসাবে আসছে। এটা সব জায়গা থেকে খবর পাচ্ছি।’মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে গণভবন থেকে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের মাঠ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। করোনাভাইরাস প্রতিরোধের লক্ষ্যে দেশব্যাপী চলমান কার্যক্রমে সমন্বয় করতে এই কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে দেশের অন্য সকল বিভাগের জেলাসমূহের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদেও সঙ্গেও ভিডিও কনফারেন্স করবেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী জানান, ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসে। তখনই আমরা উন্নয়ন কাজে হাত দেই। ২০০৯ সালে আমরা ক্ষমতায় এসে প্রবৃদ্ধির হার সবচেয়ে বেশি অর্জন করি। ২০২১ একুশ সালে আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করব এই প্রস্তুতি ছিল। সমাজের একেবারে সবার ভাগ্য পরিবর্তনের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। কিন্তু দুর্ভাগ্য হলো করোনা বলে একটা ভাইরাস সারা বিশ্বে প্রলয়ের সৃষ্টি করেছে। করোনাভাইরাসের কারণে আজ সবকিছু স্থবির। এর প্রভাব বাংলাদেশেও পড়েছে। বিশ্বে ২০২টা দেশ ভুক্তভোগী। আমরা শুরু থেকে চেষ্টা করছি মানুষ যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। এই ভাইরাসটা কিভাবে প্রভাবিত হয় এটা একটা অঙ্কের মতো।’ আমাদের দেশে এপ্রিল মাসে করোনা আরও ব্যাপকভাবে আসবে। এই মাস নিয়ে আমি চিন্তায় আছি। এর লক্ষণও আমরা দেখছি। আমাদের এমনভাবে চলতে হবে যাতে আমাদের মানুষের ক্ষতি কম হয়। তবে এটা ঠিক একটা স্থবিরতা এসেছে সবক্ষেত্রে। আমরা অর্থনীতির যে গতি সৃষ্টি করেছিলাম এটা স্থবির হয়েছে শুধু আমাদের দেশে নয় সারা বিশ্বের একই অবস্থা।’ সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে কারও মধ্যে করোনাভাইরাসের অসুস্থতা দেখা দিলে তাকে যথাস্থানে খবর দেয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। বলেন, ‘চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। আমাদের প্রচুর চিকিৎসা সামগ্রী রয়েছে’।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

দেশের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের ১৫ জেলার প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করছেন। প্রধানমন্ত্রীর সরকারী বাসভবন গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী এই ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দিয়েছেন।করোনাভাইরাস এবং ত্রাণ সরবরাহের বিষয়গুলো এতে প্রাধান্য পাবে।এ ছাড়া করোনায় করণীয় সম্পর্কেও দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।বাংলাদেশসহ বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস আতঙ্কে ভুগছে সবাই। এই ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে নানা পদক্ষেপ। তবে এর ভয়াবহতা কোথায় গিয়ে শেষ হবে তা নিয়ে শঙ্কা আছে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এইসময়টাকে ক্রান্তিকাল উল্লেখ করে জানান, ‘একটি ক্রান্তিকালে এই ভিডিও কনফারেন্স। এরকম পরিস্থিতি বোধহয় আমরা জাতীয় জীবনে আর কখনও দেখিনি।করোনাভাইরাস ক্রমাগত ভয়ংকর হয়ে উঠছে। সারা বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দেশেও বাড়ছে প্রাণঘাতি এই রোগীর সংখ্যা। গণভবন থেকে জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে এসব কথা বলেন। দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনুষ্ঠিত এই ভিডিও কনফারেন্সে দেশের ৬৪ জেলা প্রশাসক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। জেলা প্রশাসকদের পাশাপাশি দেশের ৮ বিভাগীয় কমিশনারও এতে যুক্ত ছিলেন। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত ৪৯ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৯ জন। তিনি বলেন, ‘আজ যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে সেটা কেবল বাংলাদেশে নয়, সমগ্র পৃথিবীজুড়ে এই সমস্যাটা রয়েছে। এখানে ধনী-দরিদ্র, দুর্বল কিংবা শক্তিশালী দেশ, উন্নত বা অনুন্নত সবাই এই পরিস্থিতির শিকার। কেউই বাদ যায়নি। এরকম পরিস্থিতি বোধ হয় আমরা জাতীয় জীবনে আর কখনও দেখিনি। অতীতের ঘটনা পর্যালোচনা করলে দেখা যাবে শত বছরে একবার করে এরকম একটা ধাক্কা আছে। করোনা মোকাবিলায় সরকারের কর্মকাণ্ড তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল জনগণকে সচেতন করা। সেটা আমরা করতে পারলেও তিন মাসে আমরা এই অবস্থা ধরে রাখতে পেরেছি। সবাই নিজেদের জায়গা থেকে যার যার দায়িত্ব পালন করেছেন বলেই এটা পেরেছি। আমরা বিমানবন্দর, নৌবন্দর চলাচল নিয়ন্ত্রণ করেছি। থার্মাল স্ক্যানারসহ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি।’ স্তারিত আসছে.......

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

দেশের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের ১৫ জেলার প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করছেন। প্রধানমন্ত্রীর সরকারী বাসভবন গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী এই ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দিয়েছেন।করোনাভাইরাস এবং ত্রাণ সরবরাহের বিষয়গুলো এতে প্রাধান্য পাবে।এ ছাড়া করোনায় করণীয় সম্পর্কেও দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। করোনাভাইরাস ক্রমাগত ভয়ংকর হয়ে উঠছে। সারা বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দেশেও বাড়ছে প্রাণঘাতি এই রোগীর সংখ্যা। বিস্তারিত আসছে.......

গাজীপুর কঠোর অবস্থানে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী

আতিকুর রহমান আরতিক গাজীপুর প্রতিনিধিঃকরোনা মোকাবিলায় ঢাকা-টাঙ্গাইল ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে কঠোর অবস্থানে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী। ঢাকামুখী পরিবহনগুলোকে প্রতিটি চেকপোস্টে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সুনির্দিষ্ট কারণ বলতে না পারলে পরিবহনগুলো চলাচলে বাধা দেয়া হচ্ছে। এছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে ওষুদের দোকান ছাড়া বাকি সকলপ্রকার নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান দুপুর ১২টার পর থেকে বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সালনা হাইওয়ে থানার ওসি জহিরুল ইসলাম খান জানান, ‘কোন অবস্থাতেই মহাসড়কে যানবাহন চলাচল করতে দেয়া হচ্ছে না। শুধুমাত্র জরুরি প্রয়োজন ছাড়া সকল প্রকার যানবাহনকে আটকে দেয়া হচ্ছে।

আজ বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস

আজ ৭ এপ্রিল ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস’। ১৯৪৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে জাতিসংঘ অর্থনীতি ও সমাজ পরিষদ আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের সম্মেলন ডাকার সিদ্ধান্ত নেয়। একই বছরের জুন ও জুলাই মাসে আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাংগঠনিক আইন গৃহীত হয়, ১৯৪৮ সালের ৭ এপ্রিল এই সংগঠন আইন আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকর হয়। এইদিন বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস বলে নির্ধারিত হয়। প্রতি বছর সংস্থাটি এমন একটি স্বাস্থ্য ইস্যু বেছে নেয়, যা বিশেষ করে সারা পৃথিবীর জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। সেদিন স্থানীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে পালিত হয় এ দিবসটি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংস্থার সদস্যভুক্ত দেশগুলোতে প্রতি বছর যথাযথ গুরুত্বের সঙ্গে দিবসটি পালিত হয়। স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদস্যপদ পাওয়ার পর থেকে বাংলাদেশ অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে দিবসটি পালন করে আসছে।

করোনাভাইরাস নিয়ে আজ ভিডিও কনফারেন্স করবেন প্রধানমন্ত্রী

আজ মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনা সকাল ১০টায় গণভবন থে‌কে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের জেলাগুলোর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভি‌ডিও কনফা‌রেন্স কর‌বেন।প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূ‌ত্রে এ তথ‌্য জানান। সূত্র জানায়, করোনাভাইরাস ও ত্রাণ সরবরাহের বিষয়সহ সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের জেলাগুলোর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে মত‌বি‌নিময় কর‌বেন প্রধানমন্ত্রী। কনফারেন্সটি বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতার সরাসরি সম্প্রচার করবে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী গত ৩১ মার্চ ৬৪ জেলা প্রশাসকের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেন। সেখানে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মাঠ প্রশাসন কীভাবে কাজ করছে তা খোঁজ খবর নেয়ার পাশাপাশি তাদের দিক-নির্দেশনা দেন। কর্মহীন হওয়া দেশের দরিদ্র মানুষদের প্রণোদনাসহ যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তা বাস্তবায়নে স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশনাও দেন সরকারপ্রধান।

নতুন আইজিপি হচ্ছেন বেনজীর আহমেদ,রাষ্ট্রদূত হচ্ছেন জাবেদ পাটোয়ারী

নতুন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) হিসেবে নিয়োগ পাচ্ছেন RAB মহাপরিচালক (ডিজি) ড. বেনজীর আহমেদ।বর্তমানে আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীর স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি। ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীকে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ শ্রমবাজার হিসেবে পরিচিত একটি মুসলিম দেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। এই দুই শীর্ষ কর্মকর্তার নতুন নিয়োগের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে। সরকারের শীর্ষ নীতিনির্ধারণী এ তথ্য জানান।শেষ সময়ে বড় কোনো পরিবর্তন না হলে আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই আনুষ্ঠানিক নিয়োগ পাবেন এই দুই কর্মকর্তা। ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন জাবেদ পাটোয়ারী। আগে থেকেই সৎ, মেধাবী ও পেশাদার কর্মকর্তারা হিসেবে পরিচিতি ছিল তার।তিনি আইজিপি হওয়ার পর থেকে পুলিশের দুর্নীতির বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেন। তার সাহসী নেতৃত্বে পুলিশের দুর্নীতি অনেকটাই কমে এসেছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। এ ছাড়া পুলিশের বদলি-নিয়োগসহ নানা ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে সক্ষম হন তিনি। বিশেষ করে ঘুষ ছাড়া পুলিশের কনস্টেবল নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন করে তাক লাগিয়ে দেন, যেটি সব মহলে ব্যাপকভাবে প্রসংশিত।এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে আইজিপিকে চিঠি দিয়ে ধন্যবাদ দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কর্তৃপক্ষ। বদলির ক্ষেত্রে রাজনৈতিক বিবেচনার চেয়ে পেশাগত দক্ষতা, মেধার গুরুত্ব দেন জাবেদ পাটোয়ারী। এ ছাড়া অপরাধ করলে যথাযথ শাস্তির মাধ্যমে পুলিশের শৃঙ্খলা নিশ্চিতে কাজ করেছেন তিনি।আইজিপি হওয়ার আগে জাবেদ পাটোয়ারী পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) প্রধান ছিলেন। এ ছাড়া পুলিশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ১৯৮৬ সালে বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারে প্রথম স্থান অধিকার করে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে চাকরিজীবন শুরু করেন তিনি। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরে। সরকারের সূত্রে জানান, বর্তমান আইজিপির মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৩ এপ্রিল।তার আগেই এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার প্রস্তুতি চলছে। এখন পর্যন্ত বেনজীর আহমেদের আইজিপি হওয়া চূড়ান্ত। আর জাবেদ পাটোয়ারীকে তার ভালো কাজের উপহার হিসেবে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।যে দেশে রাষ্ট্রদূত হিসেবে তাকে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে, ওই দেশের বর্তমান রাষ্ট্রদূত রাজনৈতিকভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত ছিলেন। জানা যায় তিনি সৌদি আরবে রাস্ট্রদূত হতে যাচ্ছেন। এতে অপরদিকে মেধাবী, সৎ ও চৌকোস পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে বেনজীর আহমেদের পরিচিতি রয়েছে।সপ্তম বিসিএস পুলিশ ক্যাডারের কর্মকর্তা বেনজীর আহমেদ ১৯৮৮ সালে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন। বেনজীর আহমেদের গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জে। র্যাব ডিজির দায়িত্ব পালনের আগে প্রায় সাড়ে চার বছর ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। তিনি জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা বিভাগে চিফ অব মিশন ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড সাপোর্ট সার্ভিসেস হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত জাতিসংঘ সদর দপ্তরে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করেছেন। কর্মদক্ষতায় তিনবার জাতিসংঘ শান্তি পদক অর্জন করেন। এ ছাড়া তিনি পুলিশের পেশাগত সর্বোচ্চ পদক বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম) অর্জন করেন। বেনজীর আহমেদের মতো পেশাদার ও মেধাবী কর্মকর্তা আইজিপি হলে পুলিশে ভিন্নমাত্রা যুক্ত হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

চট্টগ্রামে ১৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় মেলেনি করোনা

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ১৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় কারো শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মেলেনি বলে জানান চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির। তিনি জানান,চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটস্থ বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকসাস ডিজিজ (বিআইটিআইডি) করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা করা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষায় ১৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে। ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির বলেন, এ পর্যন্ত চট্টগ্রামে মোট ১৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। করোনাভাইরাসে শনাক্ত হওয়া দুজনই চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে মারা যাওয়া দুজনের পরীক্ষা আজ হয়নি বলেও জানান তিনি।

সংক্রামক ব্যাধি মোকাবিলায় বস্তিতে নজরদারি বাড়ানো দরকার

ভয়াবহ এই ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে নগরীর বস্তিতে বিশেষ নজরদারি বাড়ানো দরকার সরজমিন ঘুরে দেখা স্বাস্থ্য সচেতনতা নেই বললেই চলে বস্তিতে বসবাসকারী পরিবারগুলোর প্রায় ৭৫ শতাংশই এক কক্ষে বসবাস করে।তাই ঝুঁকি থাকছে অনেক বেশি। ফলে বস্তিসহ নিম্ন আয়ের আবাসন এলাকায় বিশেষ নজরদারি বাড়ানো প্রয়োজন।করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় শহর ও গ্রামাঞ্চলে এলাকাভিত্তিক বস্তিসহ নিম্ন আয়ের আবাসন এলাকায় বিশেষ নজরদারি বাড়ানো প্রয়োজন। এসব এলাকার জন্য নজরদারি বা তদারকি দল গঠন করে জ্বর, সর্দি-কাশি প্রভৃতি উপসর্গ আছে এমন লোকদের আলাদা করা দরকার। সন্দেহভাজন রোগীদের আলাদা করা, তাদের পরীক্ষা করা এবং শনাক্ত করার মাধ্যমে

কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকারের নতুন আইন ওআইসির প্রত্যাখ্যান

ভারত সরকারের নতুন স্থায়ী আবাস আইন ‘জম্মু ও কাশ্মীর পুনর্গঠন আদেশ, ২০২০’-এর নিন্দা জানিয়েছে ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি)। আইনটিকে ‘অবৈধ’ ও আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন বলে অভিহিত করেছে মুসলিম দেশগুলোর এ সংস্থাটি। ওআইসির স্বতন্ত্র স্থায়ী মানবাধিকার কমিশন (আইপিএইচআরসি) একটি টুইটে বলেছে যে তারা ভারত সরকারের এই নতুন আইন প্রণয়নের নিন্দা জানাচ্ছে। আইটির মাধ্যমে অধিকৃত কাশ্মীরের ‘জনমিতিক ও ভৌগলিক’ অবস্থান পরিবর্তনের চেষ্টা করা হয়েছে। খবর আনাদোলু এজেন্সির। এটিকে আন্তর্জাতিক আইন, জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিল ও ওআইসির প্রস্তাবের লঙ্ঘন উল্লেখ করে ভারতকে এই অঞ্চলে আরোপিত ‘কঠোর আইন’ বাতিল ও মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধ করার আহ্বান জানায়।প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, যারা জম্মু-কাশ্মীরে ১৫ বছর ধরে বসবাস করছেন বা সাত বছর সেখানে পড়াশোনা করে সেখান থেকেই দশম বা দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা দিয়েছেন, তারাই কেবল স্থায়ী বাসিন্দার (ডোমিসাইল) সনদ পেতে পারেন। কেন্দ্রীয় সরকার, রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা, কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় বা সরকারি গবেষণাগারের যেসব কর্মী জম্মু-কাশ্মীরে কাজ করেছেন, তাদের সন্তানরাও এ সুযোগ পাবেন। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, শুধু এই স্থায়ী বাসিন্দারাই জম্মু-কাশ্মীর সরকারের নন-গেজেটেড স্তরের লেভেল ফোর পর্যন্ত সব পদে আবেদন করতে পারবেন। লেভেল ফোরের পদের মধ্যে আছে কনস্টেবল, জুনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট। জম্মু-কাশ্মীর সরকারের বাকি পদগুলোর জন্য সব ভারতীয় নাগরিকই আবেদন করতে পারবেন বলে নতুন এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে। এতে মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ হিমালয় অঞ্চলটির জনমিতির অবস্থান বদলে যাবে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের। অর্থাৎ রাজ্যটি আর মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ না থাকতে পারে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও এই নতুন আইনটিকে ‘সকল আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তি লঙ্ঘন’ বলে উল্লেখ করে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

লাইভ টিভি

ওয়ার্ড পরিক্রমা

আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিশিষ্ট বিদ্যুৎসাহী সমাজকর্মী, স্কাউট আন্দোলন এর কর্ণধার ও আলোর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা ও বসুন্ধরা শিশু কিশোর সংগঠন এর উপদেষ্টা আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা, প্রিয় স্যারের প্রতি আবু তাহের সর্দার স্মরণ সভা কমিটির উদ্যোগে এক স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কবি ও সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, বলেন আবু তাহের সর্দার সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকবেন। জন্মিলে মরিতে হবে এটি চিরন্তন সত্য। তবুও মানুষ তাঁর সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকতে পারে। সেজন্য যাঁরা কীর্তিমান তাঁরা তাঁদের সেবামুলক কাজের মাধ্যমে মানবসমাজে বেঁচে থাকেন বহু যুগ যুগ ধরে। তিনি বলেন, এ নশ্বর পৃথিবীতে সবই ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। অর্থাৎ, কোনো মানুষই পৃথিবীতে চিরকাল বেঁচে থাকতে পারে না। সেজন্য দেশ ও মানবকল্যাণে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাওয়ার মধ্য দিয়েই আবু তাহের সর্দার অমর হয়ে থাকবেন এ রাষ্ট্র সমাজে। এ জনসমাগম স্মরণ সভা থেকে তা বুঝ যায় তিনি কতবড় ত্যাগী মানুষ ছিলেন। তিনি দীর্ঘ ৬৩ বছর এ রাষ্ট্র সমাজের জন্য শ্রম দিয়েছেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনার মুক্ত মনের বিস্ময় প্রতিভা মানুষ ছিলেন আবু তাহের সর্দার। বক্তরা বলেন, মানুষের দুঃখ-দুর্দশাকে লাঘব করতে আবু তাহের সর্দারের প্রচেষ্টা অতুলনীয়; সমাজের আলোক বর্তিকা হয়ে তিনি সমুজ্জ্বল। আবু তাহের সর্দারের কর্মজীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজ বিনির্মানে তরুনদের এগিয়ে আসার শপথ নিতে হবে। অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন আবুল হাসেম, বখতিয়ার উদ্দীন সহ মরহুমের শুভানুধ্যায়ীরা।

খেলা

তামিম-লিটনের রেকর্ড জুটিতে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে লিটন দাস ও তামিম ইকবালের বিশ্ব রেকর্ড গড়া জুটির ম্যাচে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হেরে গেল জিম্বাবুয়ে।এর আগে একমাত্র টেস্টে ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে হেরে যায় সফরকারী জিম্বাবুয়ে। আগামী ৯ ও ১১ মার্চ মিরপুর শেরেবাংলায় টাইগারদের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে অতিথিরা। হারলেই হোয়াইটওয়াশ। এমন সমীকরণের ম্যাচে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ করে জিম্বাবুয়ে। সিলেট আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে রীতিমতো তাণ্ডব চালান তামিম ইকবাল ও লিটন কুমার দাস। বিকাল চারটায় বৃষ্টি শুরু হওয়ার আগে ৩৩.২ ওভারে ১৮২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন তামিম-লিটন। দুই ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ফের যখন খেলা শুরু হয় তখন ম্যাচ নির্ধারণ হয় ৪৩ ওভারে। ব্যাটিংয়ে ঝড় তোলেন লিটন দাস। বৃষ্টির আগে ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেয়া লিটন ছাড়িয়ে যান দেশ সেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নিজের আগের গড়া ১৫৪ রানের ইনিংসের রেকর্ড ভেঙে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ১৫৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তামিম। দুই দিনের ব্যবধানে তার সেই রেকর্ড ভেঙে দেন লিটন দাস। শুক্রবার ইনিংস শেষ হওয়ার ১৩ বল আগে একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন লিটন। সাজঘরে ফেরার আগে ১৪৩ বলে ১৬টি চার ও ৮টি ছক্কার সাহায্যে ১৭৬ রানের ইনিংস খেলেন লিটন। ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রানের এই ইনিংস খেলার পথে শুধু তামিম ইকবালকেই নয়, কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ব্রায়ান লারা, রিকি পন্টিং ও কুমার সাঙ্গাকারার মতো তারকা ব্যাটসম্যানদের ছাড়িয়ে যান লিটন। লিটনের বিদায়ের আগেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৩তম এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৩তম সেঞ্চুরি করেন তামিম ইকবাল। ইনিংসের শুরুতে ওপেন করতে নেমে শেষ বল পর্যন্ত খেলে যান তামিম। আগের ম্যাচে ১৩৬ বলে ১৫৮ রান করা তামিম এদিন খেলেন ১০৯ বলে ৭টি চার ও ৮টি ছক্কায় ১২৮ রানের ইনিংস। লিটন-তামিমের জোড়া সেঞ্চুরিতে ৪৩ ওভারে ৩ উইকেটে ৩২২ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে সিকান্দার রাজার ৬১ আর ওয়েসলি মাধেভার ৪২ রানের ইনিংসে ভর করে ৩৭.৩ ওভারে ২১৮ রানে অলআউট হয়। ১২৩ রানের সহজ জয় পায় বাংলাদেশ।

সর্বশেষ সংবাদ