বাংলাদেশকে হারিয়ে এশিয়া কাপে শুভ সূচনা ভারত।

পোস্ট করা হয়েছে 25/02/2016-11:55am:    ফয়সাল মাহমুদ পাশার ক্রীড়া প্রতিবেদনঃ বাংলাদেশকে ৪৫ রানে হারিয়ে এশিয়া কাপে শুভ সূচনা করল ভারত। ভারতের দেয়া ১৬৬ রানের জবাবে ১২২ রানে শেষ হয় টাইগারদের ইনিংস। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলংকার মুখোমুখি হবে স্বাগতিক বাংলাদেশ। ১৬৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে আশিষ নেহরার বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ১ রান করা মোহাম্মদ মিথুন।বড় জয়ে শুরু ভারতের ভারতের হয়ে তিন উইকেট নেন নেহরা দলের বিপদ বাড়িয়ে চতুর্থ ওভারেই ফিরে যান সৌম্য সরকার। বুমরাহর বলে ধোনিকে ক্যাচ দেয়ার আগে ১১ রান করেন সৌম্য। এরপর সাব্বিরকে নিয়ে ৩৫ রানের জুটি গড়েন ইমরুল কায়েস। সাব্বির দ্রুততার সঙ্গে রান সংগ্রহ করলেও অন্যপ্রান্তে অাঁটোসাঁটো বোলিংয়ে ইমরুলকে আটকে রাখেন ভারতের বোলাররা। সাথে সাথে জয়ের জন্য রান রেটটাও বাড়তে থাকে বাংলাদেশের। অবশেষে অশ্বিনের বলে ডিপ স্কলার লেগে যুবরাজের হাতে ধরার পড়েন ইমরুল। ২৪ বলে মাত্র ১৪ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরেন এই ওপেনার। দলীয় ৭৩ রানের মাথায় রান আউট হয়ে ফিরে আসেন সাকিব আল হাসান। জাদেজার বল ঠেকিয়ে দিয়েই রান নেয়ার জন্য ছুটেছিলেন সাকিব। অন্যপ্রান্ত থেকে সাড়া দেননি মুশফিক। নিজের প্রান্তে ফিরতে গিয়ে উইকেটে পড়ে যান সাকিব। রোহিতের থ্রোতে উইকেট ভাঙতে দেরি করেননি ধোনি। এরপরের ওভারে পাণ্ডেকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে নিজের উইকেট বিলিয়ে আসেন সাব্বির। ৩২ বলে ৪২ রান করেন সাব্বির। সাব্বিরের বিদায়ের পর শেষ হয়ে যায় ফিকে হয়ে আসা আশাটুকুও। নেহরার করা ১৭তম ওভারের তৃতীয় বলে মাহমুদউল্লাহ ও চতুর্থ বলে মাশরাফি আউট হলে পরাজয় নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের। ইনিংসের শেষ দিক মুশফিক কিছুটা চেষ্টা করলেও সেটা হার এড়ানোর জন্য যথেষ্ট ছিল না। ভারতের পক্ষে নেহরা ২৩ রানে ৩টি, পাণ্ডে ও অশ্বিন ২৩ রানে একটি করে উইকেট নেন। এর আগে প্রথমে ব্যাট করে বাংলাদেশকে ১৬৭ রানের বড় লক্ষ্য দেয় ভারত। রোহিত শর্মা ৮৩ ও হার্দিক পাণ্ডে ৩১ রান করেন। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ভারতকে শুরুতেই বড়সড় ধাক্কাটা দেন আল আমিন হোসেন। শিখর ধাওয়ানকে সরাসরি বোল্ড করে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান এই পেসার। ২ রান করেন ধাওয়ান। এরপর বিরাট কোহলিকে ফিরিয়ে দেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি। আউট হওয়ার আগে ১১ বলে ৮ রান করেন কোহলি। পরে সুরেশ রায়নাকে নিয়ে ভারতের স্কোরটাকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন রোহিত শর্মা। তবে অষ্টম ওভারে রায়নাকে বোল্ড করেন মাহমুদউল্লাহ। সাজঘরে ফেরার আগে ১৩ রান করেন রায়না। এরপর যুবরাজ সিংকে নিয়ে ৫৫ রানের জুটি গড়েন রোহিত। এ সময়ে হাফ সেঞ্চুরিও পূর্ণ করেন রোহিত। অবশ্য এর আগে তাসকিনের বলে রোহিতের ক্যাচ ছেড়ে দেন সাকিব অাল হাসান। এই জুটিতেই ক্যারিয়ারে ১ হাজার রান পূর্ণ করেন ভারতের তারকা ব্যাটসম্যান যুবরাজ সিং। যুবরাজ আউট হওয়ার পর বাংলাদেশের বোলারদের ওপর রীতিমতো তাণ্ডব চালান রোহিত শর্মা ও হার্দিক পাণ্ডে। ২০তম ওভারে আউট হওয়ার আগে ৮৩ রান করেন রোহিত। ৫৫ বলে ৭ চার ও তিন ছক্কায় ৮৩ রান করেন রোহিত। কম যাননি হার্দিক পাণ্ডেও। মাত্র ১৮ বলে ৩১ রান করেন এই অলরাউন্ডার। শেষ বলে ছয় মেরে ভারতের স্কোরটাকে ১৬৬ রানে নিয়ে যান মহেন্দ্র সিং ধোনি। এশিয়া কাপের দ্বিতীয় ম্যাচে বৃহস্পতিবার আরব আমিরাতের বিপক্ষে মাঠে নামবে শ্রীলংকা।

সর্বশেষ সংবাদ