আজ ২২ শ্রাবণ রবীন্দ্র প্রয়াণ দিবস । কামরুল হাসান বাদল

পোস্ট করা হয়েছে 06/08/2014-10:33am:    প্রকৃতিপ্রেমিক রবীন্দ্রনাথ প্রকৃতিকে ভালোবেসেছেন জীবনের মতো করে। প্রকৃতিকে অবলোকন করেছেন অন্তর্গত দৃষ্টি দিয়ে। তাই তাঁর রচনাসমগ্রে প্রকৃতি এসেছে সৃজন-সৃষ্টি ও মননের উপজীব্য হয়ে। বিশ্বকবি বাংলার ষড়ঋতুকে নিয়ে লিখেছেন, তবে বর্ষাঋতু ছিল তাঁর সবচেয়ে প্রিয় একটি ঋতু। তাঁর গান-কবিতা ও অন্যান্য লেখায় বাংলার বর্ষা ও বৃষ্টিচিত্র এসেছে বহুবার। বর্ষাঋতু নিয়েই তিনি লিখেছেন বেশি। সে কারণেই কি তিনি মৃত্যুবরণ করেছিলেন শ্রাবণে? তাঁর প্রিয় ঋতুর একটি দিনে? তাঁর কি ইচ্ছামৃত্যু হয়েছিল? তিনি কি খুব করে চেয়েছিলেন কোনো এক বর্ষণসিক্ত দিনে তার জীবনাবসান ঘটুক? হতে পারে আবার না-ও হতে পারে। বিষয়টি কাকতালীয়ও হতে পারে। তবে তাঁর মৃত্যুর এত এত বছর পরে বাঙালি জাতি যখন তার প্রয়াণ দিবসে তাঁকে স্মরণ করে তখন কোথাও না কোথাও বারিপাত হয়, ধরণী সিক্ত হয়, মাটি কোমল হয় আর বাঙালির হৃদয়ও বর্ষার ধারার মতো সিক্ত হতে থাকে। প্রকৃতি যেমন তার সন্তানদের সবকিছু দিয়ে লালন করে থাকে প্রকৃতিপ্রেমী রবীন্দ্রনাথও তাঁর সকল সৃষ্টিকর্ম দিয়ে বাঙালিকে সভ্য করে তুলেছেন, সমৃদ্ধ করে তুলেছেন। বিশ্বের মাঝে পরিচিত ও গর্বিত করে তুলেছেন। তাঁর জন্ম হয়েছিল এমন একটি কালে, এমন একটি দেশে ও এমন একটি ভাষাগোষ্ঠীর ভেতরে যেখানে তার আগে তেমন উজ্জ্বলতর কারও জন্মও হয়নি। তিনি না পেয়েছেন সমৃদ্ধ ভাষা, না পেয়েছেন সমৃদ্ধ সাহিত্য না পেয়েছেন সমৃদ্ধ সংস্কৃতি। অথচ আশ্চর্য এক শক্তি ও উদ্দীপনায় তিনি নিজেই সৃজন করেছেন পথ আর সে পথকে নিজেদের মতো করে, নিজের সাথে করে নিয়ে গেছেন সমৃদ্ধতর বিশ্বে। বাংলাভাষা নতুন প্রাণ পেয়েছে তাঁর হাতে। উপন্যাস, ছোটগল্প, প্রবন্ধ, গান, কবিতা, নাটক, চিত্রকলা এমন কোনো শাখা নেই বাংলাসাহিত্যের যা তার কাছে ঋণী নয়, যা তার হাতে সৃষ্টি ও সমৃদ্ধ হয়নি। বলেছিলাম আগেও তিনি কোনো উন্নত ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতির উত্তরাধিকারী ছিলেন না। মূলত তাঁর হাত ধরেই সমৃদ্ধ ও ঐশ্বর্যবান হয়েছে তাঁর কালের কিংবা সর্বকালের বাঙালির ভাষা সাহিত্য ও সংস্কৃতি। যে কারণে বাঙালির প্রাত্যহিক জীবনজুড়ে থাকেন রবীন্দ্রনাথ। আনন্দ-বেদনা, প্রেম-বিরহ, মিলন ও বিচ্ছেদে রবীন্দ্রনাথ। আমাদের সহায়, আমাদের অবলম্বন হয়ে থাকেন রবীন্দ্রনাথ। ঈশ্বরে বিশ্বাসী ছিলেন তিনি। তাঁর গান ও কবিতায় ঈশ্বর বন্দনা গীত হয়েছে সম্পূর্ণ মানবিকবোধে। তাই মানুষ ও মানবতাবোধ তার সৃষ্টির এক অনন্য অধ্যায়। তাই তিনি লিখতে পারেন-‘তাই তোমার আনন্দ আমার ’পর/ তুমি তাই এসেছো নিচে। আমার নইলে ত্রিভুবনেশ্বর তোমার প্রেম হতো যে মিছে…। তাই তিনি চূড়ান্তভাবে উচ্চারণ করতে পারেন, ‘মানুষের ওপর বিশ্বাস হারানো পাপ।’ আজ ২২ শ্রাবণ। বর্ষাকাল। আজ থেকে ৭৩ বছর আগে যে কবি দেহত্যাগ করেছিলেন আজও সমানভাবে কী বর্ষায় কী শরৎ বা হেমন্তে অথবা গ্রীষ্মের তাপদাহে একটু প্রশান্তি আর মগ্নতা নিয়ে আসেন তিনি। বিশ্ব বাঙালি রবীন্দ্রনাথ।

সর্বশেষ সংবাদ
এবার ঘরে বসে তৈরি করুন জিভে জল আনা কাঁচাআমের জুস সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সফল অস্ত্রোপচার, দোয়া কামনা চট্টগ্রামের -১৬ বাঁশখালীর এমপিসহ পরিবারের ১১ সদস্য করোনা আক্রান্ত সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের শারীরিক অবস্থার অবনতি দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্র্ধ্বগতিতে জনদুর্ভোগ এখন চরমে আজ বছরের দ্বিতীয় চন্দ্রগ্রহণ পরিবহন সেক্টরে চাঁদাবাজি বন্ধে কঠোর হওয়ার নি‌র্দেশ আইজিপি’র  তথ‌্যমন্ত্রী  ড. হাছান মাহমুদ এমপি র  শুভ জন্মদিনে শুভ কামনা।  তথ‌্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি মহোদয়ের শুভ জন্মদিন আজ করোনায় পোশাক কারখানায় ৫৫ শতাংশ কাজ কমে গেছে: রুবানা হক