বৃদ্ধ পাচ্ছে চট্টগ্রাম বন্দরের কনটেইনার হ্যান্ডলিং

পোস্ট করা হয়েছে 06/12/2016-11:51am:    কোথায় গিয়ে ঠেকবে চট্টগ্রাম বন্দরের কনটেইনার হ্যান্ডলিং? আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যে দেশের ৯২ শতাংশ পণ্য পরিবহনকারী চট্টগ্রাম বন্দরে কনটেইনার হ্যান্ডলিং বাড়ছেই। ১৯৭৭ সালে মাত্র ৬ একক কনটেইনার নিয়ে যাত্রা শুরু করা চট্টগ্রাম বন্দর গত বছর ২০ লাখ ২৪ হাজার ২০৭ একক কনটেইনার হ্যান্ডলিং করেছে। এবার নভেম্বর মাস শেষে তা ২১ লাখ ৩৮ হাজার ৪৮৫ একক কনটেইনার হ্যান্ডলিং হয়ে গেছে। বছরের শেষ মাসের হ্যান্ডলিং শেষে তা ২৩ লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে। আর তা হলে বিশ্বের ১০০ শীর্ষ বন্দরের তালিকায় গত বছর যেখানে ৭৬ তম স’ানে ছিল এবার তা আরও এগিয়ে আসতে পারে। বছরের পাঁচ মাসে (মে, জুন, জুলাই, আগস্ট, সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর) গত বছরের তুলনায় কম পরিমাণ কনটেইনার হ্যান্ডলিং হলেও এই এগিয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম বন্দরের মুখপাত্র ও সদস্য (প্রশাসন ও পরিকল্পনা) জাফর আলম বলেন, ‘প্রাইম মুভার মালিকদের ধর্মঘট, লাইটারেজ জাহাজ মালিক শ্রমিকদের ধর্মঘটসহ বিবিধ কারণে মধ্যবর্তী পাঁচ মাস কনটেইনার হ্যান্ডলিং কমে গিয়েছিল। তারপরও চাহিদা বেশি থাকার কারণে অন্যান্য মাসে বেশি হওয়ায় এবার তা ২৩ লাখ অতিক্রম করতে পারে। এ ধরনের বাধা না থাকলে তা হয়তো ২৬ লাখে গিয়ে ঠেকতো।’ কিন’ এই প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার সামর্থ্য বন্দরের রয়েছে কি-না জানতে চাইলে জাফর আলম বলেন, ‘বন্দরের এই প্রবৃদ্ধির কথা মাথায় রেখে আমরা পতেঙ্গা কনটেইনার টার্মিনাল ও বে টার্মিনাল নির্মাণ কার্যক্রম শুরু করে দিয়েছি। নতুন টার্মিনালের পাশাপাশি বন্দরের সক্ষমতা বাড়াতে নতুন যন্ত্রপাতি সংগ্রহের জন্য দরপত্রও আহবান করা হয়েছে।’ কিন’ বন্দরের স্বাভাবিক প্রবৃদ্ধি হলেও বন্দরের সক্ষমতা দিন দিন কমছে জানিয়ে বাংলাদেশ শিপিং এজেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আহসানুল হক চৌধুরী বলেন, ‘আমদানি বেড়ে যাওয়ায় বন্দরের কনটেইনার হ্যান্ডলিং বেড়েছে। আগামীতে আরো বাড়বে। কিন’ চাহিদার কথা মাথায় রেখে বন্দরের সক্ষমতা বাড়ছে না। যন্ত্রপাতির অভাব ও কনটেইনার রাখার জায়গা নেই, সব মিলিয়ে বিশাল সমস্যায় পড়তে হবে বন্দরকে।’ এ বিষয়ে শিপিং প্রতিষ্ঠান ওওসিএল এর মহাব্যবস’াপক ক্যাপ্টেন গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘দেশের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় আগামীতে আমদানি-রপ্তানি আরো বাড়বে। চট্টগ্রাম বন্দরের সক্ষমতা কম থাকায় আমরা স্বাভাবিকভাবে মাসে ৫ হাজার কনটেইনার কম আনছি। এভাবে অন্যান্য শিপিং কোম্পানিগুলোও পণ্য আনা কমিয়ে দিয়েছে। কিন’ তারপরও চাহিদা থাকায় বাজেটের আগে এবং বছরের শেষে কনটেইনার পরিবহন বেড়ে যায়। বন্দরের বাড়তি এসব কনটেইনার হ্যান্ডলিং করার জন্য বন্দর তাদের সক্ষমতা বাড়াচ্ছে না।’ সক্ষমতা রয়েছে বলে সীমাবদ্ধতা দিয়ে রেকর্ড কনটইেনার হ্যান্ডলিং করা যাচ্ছে জানিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের পরিচালক (ট্রাফিক) গোলাম ছরওয়ার বলেন, ‘বন্দর সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সমস্যা না হলে বছর শেষে বন্দরের কনটেইনার হ্যান্ডলিং সংখ্যা ২৬ লাখ অতিক্রম করতো। এছাড়া কনটেইনার ইয়ার্ড বেশি থাকলে আরও সুবিধা হতো। কনটেইনার হ্যান্ডলিং বাড়াতে বন্দর সংশ্লিষ্টরা অনেক বেশি কাজ করছে।’ বন্দর কর্তৃপক্ষ থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে জানা যায়, গত বছরের জানুয়ারি মাসে চট্টগ্রাম বন্দরে কনটেইনার হ্যান্ডলিং হয়েছে ১ লাখ ৫০ হাজার ৮৩১ একক কনটেইনার, বিপরীতে চলতি বছর হয়েছে ১ লাখ ৮৮ হাজার ২৫৩ কনটেইনার। গত বছরের ফেব্রয়ারিতে ১ লাখ ৪৪ হাজার ৮৯৮ কনটেইনারের স’লে এ বছর হয়েছে ১ লাখ ৭৮ হাজার ৬৫৫, গত বছরের মার্চে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৯০৮ কনটেইনারের স’লে এবছর হয়েছে ১ লাখ ৮৩ হাজার ১৪ কনটেইনার, গত বছরের এপ্রিলে ১ লাখ ৬৫ হাজার ৯৫০ কনটেইনারের স’লে এবছর হয়েছে ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৩৪, গত বছরের মে মাসে ১ লাখ ৮৫ হাজার ৬৮৪ কনটেইনারের স’লে এবছর হয়েছে ১ লাখ ৩১ হাজার ৭৯০ কনটেইনার, গত বছরের জুন মাসে ১ লাখ ৭১ হাজার ৭৯৮ কনটেইনারের স’লে হয়েছে ১ লাখ ৩১ হাজার ১৮৮ কনটেইনার, গত বছরের জুলাই মাসে ১ লাখ ৫৪ হাজার ৩৬১ কনটেইনার হ্যান্ডেলিং হলেও এবছর হয়েছে ১ লাখ ২৮ হাজার ৯৫৪, গত বছরের আগস্টে ১ লাখ ৮০ হাজার ৪৬৩ কনটেইনার হ্যান্ডেলিং হলেও এবছর হয়েছে ১ লাখ ৪৮ হাজার ৭৫৮, গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ১ লাখ ৭৭ হাজার ৯৭৩ কনটেইনার হ্যান্ডেলিং করা হলেও চলতি বছর হয়েছে ১ লাখ ১৬ হাজার ৫২৯ কনটেইনার, গত বছরের অক্টোবরে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৭৯৩ কনটেইনার হ্যান্ডেলিং এর জায়গায় চলতি বছর হয়েছে ১ লাখ ৪৩ হাজার ১ কনটেইনার এবং গত বছরের নভেম্বরে ১ লাখ ৭৮ হাজার ৮৪৬ কনটেইনারের জায়গায় এবছর হয়েছে ২ লাখ ১৭ হাজার ৫২৬ কনটেইনার। উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম বন্দরে ২০১৪ সালে ১৭ লাখ ৩১ হাজার ২১৯ কনটেইনার হ্যান্ডেলিং করেছিল। ২০১৫ সালে ১৬ দশমিক ৯২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়ে পৌছেছিল ২০ লাখ ২৪ হাজার ২০৭ কনটেইনারে।

সর্বশেষ সংবাদ