চসিক বিকেল ৪টার মধ্যে নগরীর কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করবে

পোস্ট করা হয়েছে 22/08/2018-01:35pm:    এডঃ সুব্রত চৌধুরী ডেক্স প্রতিবেদনঃ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন বিগত তিন বছরের সাফল্যের ধারাবাহিকতায় এবারো ঈদের দিন কোরবানির ঈদের বর্জ্য অপসারণে বিকাল ৪ টার মধ্যে নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডের বর্জ্য অপসারণের কাজ করছে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী একথা জানান।নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিচ্ছন্ন বিভাগের সুপারভাইজাররা বর্জ্য অপসারণে তাদের কাজের সুবিধার্থে প্রয়োজনীয় ওয়াকিটকি, গাড়ি, টমটম গাড়ি, বেলছা, ঝাড়, হুইল ভেরু’র চাহিদার কথা উল্লেখ করে তা সরবরাহের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ারকথা জনান ভারপ্রাপ্ত মেয়র। কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, পরিচ্ছন্ন বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্পোরেশনের সামর্থ্যরে মধ্যে সব ধরণের সহযোগিতা করা হবে উল্লেখ করেন।এ দিকে চট্টগ্রাম সিটি ভারপ্রাপ্ত মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী কোরবানির ঈদের বর্জ্য অপসারণে নগরবাসী সকল ওয়ার্ড কাউন্সিলর, কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন, প্রকৌশল বিভাগের সংশ্লিষ্ঠ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সহযোগিতা কামনা করেন সরজমিনে তিনি বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শনে যান। উল্লেখ্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এবার ৪টি জোনে বিভক্ত হয়ে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করবে। আর এ কাজের জন্য কর্পোরেশন ৫ হাজার জন শ্রমিক, ৩৫০ টি গাড়ি, পশু জবাইকৃত স্থানে ব্লিচিং পাওডার ছিটানোর ব্যবস্থা করেছে। এর মধ্যে সরু রাস্তা ও গলি থেকে বর্জ্য অপসারণের জন্য টমটম, হুইল ভেরু ও বর্জ্য অপসারণ কাজ তদারকিতে নিয়োজিত পরিচ্ছন্ন বিভাগের সুপারভাইজারদের জন্য সিএনজিচালিত ট্যাক্সির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এ ছাড়া কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণে নাগরিকদের সহযোগিতা চেয়ে চট্টগ্রামের স্থানীয় পত্রিকাগুলো বিজ্ঞাপন প্রচার, প্রতিটি ওয়ার্ডের মসজিদগুলোতে গত শুক্রবার জুমার খুতবায় ইমাম সাহেবের মাধ্যমে প্রচার, হ্যান্ড বিল ও লিফলেট বিলি করা হয়েছে।কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে এবারো বর্জ্য অপসারণে কোন ওয়ার্ডে যত ট্রিপ গাড়ি দেওয়া প্রয়োজন তত দেয়া হবে জানানো হয়েছে। এ জন্য দামপাড়াস্থ চসিক কার্যালয়ে ১টি কন্ট্রোলরুম খোলা সহ চসিকের প্রকৌশল বিভাগের যান্ত্রিক শাখা পরিবহন পুলকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। তিনি এবারো অন্যান্য বারের মত বর্জ্য অপসারণে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন সাফল্য ধরে রাখতে পারলে পরিচ্ছন্ন বিভাগের দায়িত্বরত শ্রমিক-সেবকদের জন্য পুরস্কারের ব্যবস্থা থাকবে বলে জানান। তাছাড়া ঈদের দিন দুপুরে কর্মরত পরিচ্ছন্ন শ্রমিক-সেবকদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

সর্বশেষ সংবাদ